মন খারাপের গান

ঝড় উঠেছে ঈশান কোনে, ম্লান হয়েছে ধরনির মুখ
গোলাপের রঙে বিঁধছে কাঁটা, দিশা হারিয়েছে অন্তর-সুখ
মায়াবী বিশ্বসংসারে আজ পেয়েছি স্থান অন্ধকারে
জন্ম-ধ্বংস-মৃত্যুর মাঝে খুঁজেছি আমি বাঁচার মানে
তুমি আসবে না তবু প্রকৃতি রূপে, খুঁজেছি তোমায় আলো-ছায়ায়
বৃষ্টি ভেজা মাটির সুরে, বাউল গানের একতারায়
ঝড় উঠেছে ঈশান কোনে, আবির মেখেছে আকাশের প্রান
মনখারাপের মেঘলা বিকেলে হৃদয়ে শুধু তোমার গান

তুমি প্রকৃতির প্রতিচ্ছবি, হাসছ তোমার স্নিগ্ধতায়
ভালো মন্দের রামধনুতে মনপাহারির দূর দেশে যাই
রাত্রে তুমি জোনাকির মতো, নীরবে দিচ্ছ আলো
ব্যস্ত জীবন কোলাহলে আমি তোমায় বেসেছি ভালো
তুমি যে আমার জীবনশক্তি, স্বাধিনতার আশা
বিপ্লবী মনে জাগাও তুমি, তোমার ভালবাসা
তবুও ছুড়েছ পাথরের ধারে আমার ছোট্ট গান
নদিস্রতে তা মিলিয়ে গেছে, সব মান-অপমান

তুমি যে আমার বনলতা সেন, গাইছ মনখারাপের গান
কঠোর হওয়া শুকনো বুকে বৃষ্টি হয়ে জাগাও প্রাণ
আশ্রয় দেয় তোমার আঁখি, আঁধার নামে মনের রাতে
অন্ধকারে মশাল হয়ে ভাবাও আমায় রাতবেরাতে
হাসছ তুমি, গাইছ তুমি, ফুলের গন্ধে, মাটির পথে
বিপ্লব আজ থমকে গেছে, বিষণ্ণতাই আমার সাথে
ঘরছাড়া তুমি করেছ আমায়, মাতাল হয়েছি উন্মাদনায়
মোহনার বুকে ধুয়ে-মুছে যায়, ছোট্ট একটু আশা

নেশায় মেতেছি তোমার গন্ধে, গান লিখে যাই তাই
জীবন ফেলে, পাতার ভিড়ে, তোমাকেই খুঁজে পাই
আজ দিনের শেষে মেঘলা বিকেল ক্লান্ত হয়ে আসে
থেকেও না থাকা, ডেকেও না ডাকা, পাব না তোমায় পাশে
ভালো থাক তুমি, এই চায় মন, নিষ্পাপ ব্যাকুলতা
এ জন্মে আর হবে না যে দেখা, জীবনের ব্যর্থতা
তবু প্রতিদিন এসে, জীবনস্রোতে, তোমারই গান গাই
যদি একবার হাস, পাশে যদি বস, আবার দেখা পাই